চুল পড়ার সমাধানে এখন নতুন কুমারিকা হেয়ার ফল কন্ট্রোল অয়েল

কুমারিকা হেয়ার ফল কন্ট্রোল অয়েল যেভাবে কাজ করে

কুমারিকা ক্লেইম করছে নতুন হেয়ার অয়েলে আছে দ্বিগুণ প্রাকৃতিক নির্যাস এবং আমন্ড বাদামের ভিটামিন ই। প্যাকেজিং-টা দেখে ভালো লাগলো এবং ব্যবহার করা শুরু করলাম সপ্তাহে ৩ দিন করে। প্রথম দুই সপ্তাহে একটা চেঞ্জ খেয়াল করলাম। চুল আগের মতন জট লাগছে না আর একটা মসৃণভাবও চলে এসেছে। জট কম হবার কারণে মনে হলো চুল পড়াটাও কমেছে।
আমার হেয়ার টাইপ ড্রাই। তাই একটু নারিশমেন্ট প্রয়োজন ছিল। মাঝে মধ্যে এই তেলে একটু মধু, পাকা কলা মিশিয়ে হেয়ারে লাগাতাম। শ্যাম্পু করার পর চুল শুকিয়ে গেলে ফিল করতাম চুল আগের থেকে সিল্কি হয়েছে। ৩ মাস কন্টিনিউ করলাম এবং খেয়াল করলাম চুল পড়া আগের থেকে অনেক কমেছে। চুল আগের থেকে বেশি ঝলমলে আর মজবুত মনে হলো নিজের কাছে।
যে বিষয়গুলো হাইলাইট করতে চাচ্ছি সেটা হলো, তেলের সাথে যখন হারবাল উপাদান যুক্ত হচ্ছে, সেটা চুলের গোড়ায় যেয়ে চুলকে পুষ্টি দিচ্ছে। আমরাতো জানি যে ভিটামিন-ই চুলের গোড়ায় পুষ্টি যোগায়, চুলের আদ্রতা ধরে রেখে চুল নরম আর প্রানবন্ত করে, চুল পড়া লক্ষণীয়ভাবে কমাতে সাহায্য করে। আমলার নির্যাস, অ্যালোভেরাসহ আরো অনেক হারবাল উপাদান যেটা চুলকে মজবুত করে দূষণজনিত ক্ষতি থেকে রক্ষা করে। চুল পড়ার সমাধানে বাদাম তেল অনেক উপকারি। সেই সাথে আমলার ওষুধি গুন চুলের স্বাভাবিক পিএইচ ধরে রাখে।

নতুন কুমারিকা হেয়ার ফল কন্ট্রোল অয়েল কিভাবে আলাদা?

অনেক আগেও একবার কুমারিকা তেল ব্যবহার করেছিলাম। তখন যে জিনিসটা ভালো লাগে নি, সেটা হলো শ্যাম্পু করতে একটু বেশি টাইম লেগেছিল কিন্তু এখনকার নতুন কুমারিকা ব্যবহার করে অনেক কমফোরটেবল ফিল করলাম। শ্যাম্পু করতে আর আগের মত সমস্যা হচ্ছে না!

শেষ কথা
ওভার অল এটা আমার জন্য ভালো কাজ করেছে এবং আমি রেগ্যুলার ইউজার হয়ে গিয়েছি। হেলদি আর মজবুত চুল আমাকে কনফিডেন্ট করেছে আগের থেকে অনেক বেশি। আপনার হাতের কাছেই এখন চুল পড়ার সমাধান! এটি আসলে ব্যস্ত জীবনে একটা ছোট্ট সমাধান। সেই সাথে প্রোপার ডায়েট, পরিমিত ঘুম সবকিছু মিলিয়ে আপনিও কমিয়ে ফেলতে পারবেন চুল পড়ার সমস্যা। চুল পড়লে কার ভালো লাগে, বলুন? তেলের সাথে যখন ভিটামিন-ই এর পুষ্টি এক্সট্রা পাচ্ছেন, একবার ট্রাই করে দেখতে পারেন। আপনার চুল হোক আপনার পরিচয়।