পরিবারের কেউ করোনা আক্রান্ত হলে কী করবেন

প্রতিদিনই সারা বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। এ সময় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার পরামর্শ দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার পরও হয়তো কোনোভাবে আপনার পরিবারের কেউ করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। তখন কি করবেন?

আক্রান্ত হলে আপনাকে বাড়িতে থাকতে হবে, মাস্ক পরতে হবে, বারবার সাবান দিয়ে হাত ধুতে হবে, স্যানিটাইজার ব্যবহার করতে হবে এবং চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

আসুন জেনে নিই পরিবারের কেউ আক্রান্ত হলে কী করবেন?

১. সংক্ৰমিত রোগীকে আলাদা ঘরে রাখুন। যে ঘরের সঙ্গে লাগোয়া বাথরুম রয়েছে সেখানে রাখুন।

২. অসুস্থতাবোধ করলে রোগীকে নিজের থেকেই সচেতন হতে হবে। নিজেরই সব কিছু পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার দিকে নজর দিন।

৩. রোগী যাতে রান্নাঘরে না ঢোকে, সেদিকে বিশেষ খেয়াল রাখুন। একজন তার দেখভাল করুন।

৪. সংক্ৰমিত রোগীকে আলাদা ঘরে রাখা সম্ভব না হলে অন্যদের থেকে তাকে তিন ফুট দূরে থাকতে হবে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতানুসারে মাস্ক পরে থাকা খুবই জরুরি।

৫. রোগীর সঙ্গে কথা বলা বা তার দেখাশোনা করার সময় মাস্ক ও গ্লাভস পরার সঙ্গে সঙ্গে সব সাবধানতা অবলম্বন করুন। শিশু, বয়স্ক ও দুর্বল রোগীদের থেকে দূরে থাকতে হবে।

৬. কোনো ব্যক্তির মধ্যে করোনার উপসর্গ থাকলে ১৭ দিন আইসোলেশনে থাকতে হবে। যদি হালকা জ্বর অনুভব করেন তা হলে ১০ দিন নিজেকে আলাদা রাখুন।

৭. প্রচুর পরিমাণে জলীয় পদার্থ পান করুন। পুষ্টিকর খাবার খান।

৮. নাক-মুখ ঢেকে রাখুন। কাশি বা হাঁচির সময় ডিস্পোজাল টিসু ব্যবহার করুন। ব্যবহারের পর তা নষ্ট করে ফেলুন।

৯. শ্বাসকষ্ট হলে ডাক্তারের সঙ্গে যোগাযোগ করুন।