ডালগোনা কফিতেই মাত লকডাউন, দেখে নিন রেসিপি

এমনিতেই চলছে লকডাউন। তার ওপরে বেজায় গরম। সবমিলিয়ে পরিস্থিতি যেন দুর্বিষহ হয়ে উঠেছে। হাতে অঢেল সময়, অফিসের কাজ টুকু বাদ দিয়ে করার যেনো আর কিছু নেই। হ্যাঁ, তবে খাদ্যরসিক মানুষদের কাছে এই লকডাউন ও গরমটা যেন কিছুই না। নিদেনপক্ষে এই অঢেল সময় খাবার প্রিয় মানুষদের কাছে স্বাদবদলের এক দারুন মুহূর্ত। তাই বিন্দুমাত্র সময় নষ্ট না করে রোজদিন একের পর এক এক্সপেরিমেন্ট চলতেই থাকছে।

এই প্যাচপ্যাচে গরমে মানুষ সাধারণত হালকা খাবার আর পানীয়ের মধ্যে ফলের রস, কোল্ড কফি বা ফিল্টার কফি ইত্যাদি পছন্দ করেন। লকডাউন এর দৌলতে কিছুটা হলেও মনকে ভুলিয়ে রাখতে হয়েছে এইসব থেকে। তবে হঠাৎই লকডাউনের বাজারে সোশ্যাল মিডিয়া সেন্সেশন হয়ে দাঁড়িয়েছে ডালগোনা কফি। ফেসবুক, ইনস্টাগ্রামে একের পর এক পোস্ট, নাম দেওয়া হয়েছে ‘কোয়ারেন্টাইন কফি’। লকডাউনের মন খারাপ কে ঠিক করতে তৈরি করে ফেলছেন এই কফি টি। কফিখোর দের মতে, এটি বানানোটাও যেমন দেখার মত, তেমনি স্বাদেও জবরদস্ত। আপনারা নিশ্চয় ইচ্ছে হচ্ছে এই কফিটির স্বাদ গ্রহণ করার। চলুন দেরি না করে আমাদের এই আর্টিকেলে দেখে নিন কম সময়ে এবং সহজ পদ্ধতিতে কিভাবে ডালগোনা কফি বানাবেন।

ঐতিহাসিকদের মতে এই কফির উৎপত্তি ভারতীয় মহাদেশে হলেও একসময় এটির নাম ছিল ফেঁতি হুই। ডালগোনা শব্দটির উৎপত্তি কোরিয়া থেকে। দক্ষিণ কোরিয়ার অন্যান্য খাবার গুলির মধ্যে এই কফির জনপ্রিয়তা সবথেকে বেশি। কবে ভারত ও পাকিস্তানেও এই কফির প্রচলন রয়েছে। এই লকডাউনের বাজারেও কফি মগে তুফান তুলেছে ডালগোনা। শুধুমাত্র ইনস্টাগ্রামে ৯১ হাজারেরও বেশি পোস্ট হয়েছে। দেখে নিন জনপ্রিয় কফির রেসিপি।

উপকরণ
ফোটানো ঠান্ডা দুধ – ১ কাপ

কফি – ২ টেবিল চামচ

গরম জল – পরিমাণমতো

চিনি- পরিমাণ মতো

বরফ – প্রয়োজন মতো

পদ্ধতি
প্রথমে একটি বাটিতে পরিমাণ মতো চিনি, গরম জল ও কফি ঢেলে নিন। এরপর মিশ্রণটি ভাল করে মেশান। ইলেকট্রিক বিটার বা হ্যান্ড বিটার দিয়ে মিশ্রনটিকে ফেটিয়ে নিন। ঘন ফেনা না হওয়া পর্যন্ত ফেটাতে থাকুন।

এরপর কফি মগে প্রয়োজন মতো বরফের টুকরো নিন। তাতে পরিমাণমতো দুধ ঢেলে দিন। এরপর ফাটানো মিশ্রণটি দুধের উপর ঢেলে দিন। গার্নিশিং এর জন্য সামান্য কফি পাউডার ছড়িয়ে দিন। তৈরি আপনার স্বাদে ভরা ‘ডালগোনা কফি’।

আপনি যদি এক কাপ এর বেশি তৈরি করতে চান, তবে দুধ ,কফি, চিনি ও গরম জলের পরিমাণটা বাড়িয়ে নেবেন।