বাংলাদেশী তরুনীকে বিয়ে করলো ইতালির প্যারামিলিটারি ক্যারাবিনিয়ারি কর্মকর্তা

মালিক মনজুর,ইতালি প্রতিনিধিঃ

ভালোবাসা কোনো বাধা মানে না। মানে না কোন জাত ধর্ম। নিজ দেশের ভাষা, ধর্ম, সংস্কৃতি —সবকিছুকে পেছনে ফেলে  বাংলাদেশি তরুণীকে বিয়ে করলেন ইতালির এক পুলিশ কর্মকর্তা। যা গোটা দেশে আলোড়ন সৃষ্টি করেছে। পুরো ঘটনা এখন টক অব দ্য টাউনে পরিণত হয়েছে।সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) দক্ষিণ ইতালির কাম্পানিয়া বিভাগের সালের্নো প্রভিন্সের মাইওরি পৌর এলাকায় বিয়ের আয়োজন করা হয় তাদের। এ ঘটনাটি ইতালির গণমাধ্যমে প্রকাশ হওয়ার পর বেশ আলোড়ন সৃষ্টি করে।জানা গেছে, বাংলাদেশি তরুণী সুমাইয়ারাকে ভালো লাগা থেকে ভালোবাসায় জড়িয়ে পড়েন ইতালির এক পুলিশ কর্মকর্তা দোমেনিকো তামবুররিনো। দীর্ঘদিনের প্রেমের ইতি টেনে অবশেষে বিয়েবন্ধনে আবদ্ধ হন তারা। বিয়ের অনুষ্ঠানে বর দোমেনিকো তার বিখ্যাত বাহিনীর গৌরবের ইউনিফর্ম পরিধান করেন। আর লাল রঙের বেনারশি শাড়ি পড়েন বাংলাদেশি বধূ সুমাইয়ারা। এ ঘটনা দেশটির গণমাধ্যমে প্রকাশিত হলে আলোড়ন সৃষ্টি হয়।র ইতালীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্যারামিলিটারি পুলিশ ফোর্স ক্যারাবিনিয়ারির মার্শাল হিসেবে উত্তর-পশ্চিম ইতালির পিয়েমন্তে বিভাগের তুরিন প্রভিন্সে কর্মরত। আর তুরিন সিটি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে অধ্যয়নরত অবস্থায় বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ২৫ বছর বয়সী সুমাইয়ারার সঙ্গে প্রথম পরিচয় ঘটে দোমেনিকোর। ভালো লাগা থেকে তাদের ভালোবাসা হয়। অবশেষে বিয়ে।

এই নবদম্পতির প্রশংসায় পঞ্চমুখ দেশটির জনগণ। ইতালীয় বিভিন্ন নিউজ পোর্টাল এবং সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন তারা।স্থানীয়রা বলছেন, এই প্রথম কোনো বাংলাদেশি নারী ইতালীয় পুলিশকে বিয়ে করে একটি বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। মহামারি করোনার কারণে ফ্লাইট নিষেধাজ্ঞা থাকায় কনের পরিবারের কেউই বাংলাদেশ থেকে ইতালিতে আসতে পারেননি।